৫০১-ডরমিটরি
কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়

প্রিয় ডায়েরি,

এখন বাজে রাত ৩:৪০, এই মাত্র অফিস থেকে ফিরলাম। সবকিছু গুছিয়ে রেখে আসলাম। এর ভিতর অবশ্য খুবই ইন্টারেস্টিং আবার তার থেকেও বেশি খারাপ কিছু ঘটেছে। আর তাতে আমার কিছু সহকর্মী হতভম্ব হয়ে গিয়েছে, কিন্তু আমি হই নি। আমার কাছে হতভম্ব হবার মত কিছু না এটা…! কারন আমি জানি এটা হচ্ছে তাই যার Against-এ গত সাড়ে তিন বছর আমি লড়ে গিয়েছি। এর আগে আমি লড়েছিলাম, যখন বিশ্ববিদ্যালয়ের স্টুডেন্ট ছিলাম। পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়তে গিয়েছিলাম মেধার জোরে। কারো করুনায় নয়। শিক্ষা সেখানে আমার অধিকার, কিন্তু আমরা ছিলাম জিম্মি। Literally আমাদের জিম্মি করেই কিছু শিক্ষক করেছে নোংরা রাজনীতি। পড়িয়েছে ব্যাকডেটেড টপিক, তাদের কাছে প্রশ্ন করা ছিলো রীতিমত ভয়াবহ কিছু। মুখস্ত বিদ্যা কে প্রমোট করতো, এবং এমন সত্যি কথা বলাটাও লজ্জাজনক যে কেউ কেউ ফাইনাল পরীক্ষার প্রশ্নও আউট করে দিতো।

বিশ্ববিদ্যালয়ে আমার একজন শিক্ষক ছিলো যিনি প্রশ্ন সহ্য করতে পারতেন না, ক্লাসে এসে একটা চক পেন্সিল দিয়ে চুপচাপ বোর্ডের এক পাশ থেকে অন্য পাশে লিখে দিয়ে চলে যেতেন। আমাদের কাজ ছিলো তা দেখে শুধু চুপচাপ লিখে যাওয়া। আমার একাডেমিক ক্যারিয়ারের খুব গুরুত্বপুর্ন কিছু কোর্স সে করিয়েছিলো। সেখানে আমার হয়েছে অপুরনীয় ক্ষতি। কিন্তু আমাদের কিছুই করার ছিলো না, শুধু _______ ছাড়া, কি আর বলব…! কিন্তু আমাদের ক্লাসের একটা অংশ তার ভক্ত ছিলো। কেননা এই টিচারটা আমাদের প্রায় সকলেই ফাস্ট ক্লাস মার্কস্‌ দিয়ে দিতো। ক্লাসের কিছু দুর্বল স্টুডেন্ট আর বোকারা তাই স্বভাবতই তার ভক্ত ছিলো। এজন্য সে নিজেকে কক্ষনোই সংশোধন করে নি। অনুভব না করলে কিভাবে সংশোধিত হবে…!

In fact, from some experiences like those I decorated my teaching profession base on that, “I will always try to help students in such a way to recover what i felt ‘lacking’ during my period of education.”

এখন যেনো কেমন মনে হচ্ছে। এমনটা না করলেও কিংবা ভাবলেও তো হয়/হতো। এভাবে ভাবার জন্য আমি কি কিছু হারিয়েছি? হারালেও আমি তো হারিনি, তাহলে কে হারলো? অন্যভাবেও তো হতে পারতো। স্বাধীনতার নামে আমিও তো স্বেচ্ছাচারিতা করতে পারতাম। নেতা শিক্ষকের ন্যায় হুমকি ধামকি দিতে পারতাম। এতে অন্তত আমার কিছু “নিজের” স্টুডেন্ট তৈরি হতো। আহা্‌, কি নির্মম এই প্রকৃতি। যার যা প্রাপ্য সে তাই ই পায়, পাবে। আমার পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের স্টুডেন্টরা জিম্মিই থেকে যাবে….!

4:26 am
This is my last note from this lovable place. I adore this room, 501 very much. I have spent very special period of my life considering philosophical exercise here. I always wanted to stay alone, very alone. And I was literally alone here over a long time. I have developed some virtues are remarkable. I owe to this room. It would be a real miss.
I will never roam on it’s roof, never sit in my balcony and will never compose sitting here. This is a truth, like lefting friends.

বিউগলের সুরের মতো সকালের আজান ভেসে আসছে, একই সাথে আসছে কুমিল্লায় আমার শেষ দিন টি। কেটে যায় সময়, এই কেটে যাওয়াতেও রক্ত ক্ষরন হয়। তবে তা দেখা যায় না।

FB তে মন্তব্য করতে এখানে লিখুন (ব্লগে করতে নিচে) :

2 Responses to বিউগল…

Leave a Reply

Your email address will not be published.

September 2022
S M T W T F S
 123
45678910
11121314151617
18192021222324
252627282930